Breaking News
Home / বিশ্ব মিডিয়া / কিংবদন্তী সংগীত পরিচালক খৈয়ামের মৃত্যুতে ভারতজুড়ে শোক

কিংবদন্তী সংগীত পরিচালক খৈয়ামের মৃত্যুতে ভারতজুড়ে শোক

প্রয়াত কিংবদন্তী সংগীত পরিচালক খৈয়াম। মোহাম্মদ জহুর খৈয়াম হাশমি যিনি খৈয়াম নামেই জনপ্রিয় সোমবার মুম্বইয়ের একটি হাসপাতালে মারা যান বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই । মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯২ বছর । কিংবদন্তি এই সংগীত রচয়িতা, যিনি কভি কভি এবং উমরাও জানের মতো চলচ্চিত্রগুলিতে তাঁর সংগীতের জন্য সর্বাধিক পরিচিতি পেয়েছিলেন, জুহুর সুজয় হাসপাতালে ফুসফুসের অসুস্থতায় আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন। তাঁর প্রয়াণে শোক জ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

বিশ্ব ডেস্ক ঃ ভারতের ধ্রুপদী চলচ্চিত্র ‘কাভি কাভি’ ও ‘উমরাও জান’-এর সংগীত পরিচালক মোহাম্মদ জহুর খৈয়াম মারা গেছেন। মুম্বাইয়ের একটি বেসরকারি হাসপাতালে গতকাল সোমবার তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তাঁর বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।

প্রসঙ্গত, মাত্র ১৭ বছর বয়সে তিনি সুরের দুনিয়ায় পা রাখেন। তাঁর সুরে সমৃদ্ধ হয়েছিল সেই সময়ের হিন্দি ছবির দুনিয়া। ‘কভি কভি’, ‘উমরাও জান’, ‘ত্রিশূল’, নুরি, ‘শোলা আউর শবনম’ ছবিতে তাঁর  দেওয়া সুর লোকের মুখে মুখে ফিরত। ছবির গান ছাড়াও মীনাকুমারীর নন ফিল্মি গানেও সুর দিয়েছিলেন খৈয়াম। সেগুলির মধ্যে অতি জনপ্রিয় ‘পাও পড়ু তোরে শ্যাম’, ‘গজব কিয়া তেরে ওয়াদে পে অ্যায়েতবার কিয়া’, ‘ব্রিজ মে লঔট চলো’—গানগুলি আজও শ্রোতাদের মন ভরিয়ে দেয়। সঙ্গীত নাটক অ্যাকাডেমি, পদ্মভূষণ (Sangeet Natak Akademi Award and Padma Bhushan) ছাড়াও খৈয়াম সম্মানিত হন জাতীয় পুরস্কার এবং ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ডে।

হিন্দুস্তান টাইমস প্রতিবেদনে জানিয়েছে, খৈয়ামের মৃত্যুতে ভারতের বিনোদন অঙ্গনে শোক নেমে এসেছে। বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী লতা মঙ্গেশকর ও বলিউড মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চনসহ অনেকেই শোক প্রকাশ করেছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শোক প্রকাশ করেছেন। তাঁরা বলছেন, খৈয়ামের মৃত্যুতে একটি সংগীত-যুগের অবসান হলো।

১০ দিন ধরে ফুসফুসের সংক্রমণ নিয়ে মুম্বাইয়ের সুজয় হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন খৈয়াম। হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন খৈয়ামের শারীরিক অবস্থা সংকটজনক বলে জানান চিকিৎসকেরা।সংগীত পরিচালক মোহাম্মদ জহুর খৈয়াম এর ছবির ফলাফল

‘ত্রিশূল’, ‘নুরি’ ও ‘শোলে অউর শবনম’-এর মতো স্মরণীয় চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন বর্ষীয়ান সংগীত পরিচালক খৈয়াম।

মাইক্রো-ব্লগিং সাইট টুইটারে শোক প্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। লিখেছেন, খৈয়াম সাহেবের প্রতি দেশবাসী আজীবন কৃতজ্ঞ থাকবে। তাঁর সুর চিরকাল স্মরণীয় হয়ে থাকবে। তাঁর চলে যাওয়া খুবই বেদনাদায়ক।

লতা মঙ্গেশকর টুইটে লিখেছেন, খৈয়াম শুধু মহান সুরকারই ছিলেন না, অনেক বড় হৃদয় ছিল তাঁর।

‘মহান সুরকার ও বড় হৃদয়ের অধিকারী খৈয়াম সাহেব আমাদের মাঝে আর নেই। এ খবরে আমি কতটা দুঃখভারাক্রান্ত, তা প্রকাশের ভাষা নেই। এর মধ্য দিয়ে সংগীতের একটি অধ্যায়ের অবসান হলো। তাঁর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছি,’ লেখেন লতা।

লেখক-গীতিকার জাভেদ আখতার টুইটে শোক জানিয়ে লিখেছেন, দারুণ সব গানে সুর দিয়েছেন খৈয়াম সাহেব, তবে মাত্র একটি গান ‘ওহ সুবাহ কাভি তো আয়েগি’র জন্য তিনি মৃত্যুঞ্জয়ী।

খৈয়ামের মৃত্যুতে ‘উমরাও জান’ পরিচালক মুজাফফর আলি গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। খৈয়ামকে তিনি আবেগ, অনুভূতি আর সুরের আধার বলে আখ্যা দিয়েছেন।

বর্ষীয়ান বলিউড অভিনেতা ঋষি কাপুর খৈয়ামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে তাঁর আত্মার সদগতি কামনা করেছেন।

মাত্র ১৭ বছর বয়সে লুধিয়ানাতে সংগীত নিয়ে কাজ শুরু করেন খৈয়াম। প্রথম সুযোগই পেয়েছিলেন ‘উমরাও জান’ ছবিতে কাজ করার সুযোগ। তারপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। বলিউডে পাকাপাকিভাবে নিজের আসন গড়ে নেন। চার দশক ধরে একের পর এক সুপারহিট গান উপহার দিয়েছেন তিনি। ছবির বাইরেও অনেক গান সমান জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

সংগীতে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ সংগীত নাটক আকাদেমি ও পদ্মভূষণ পুরস্কার পেয়েছেন খৈয়াম। আজ মঙ্গলবার তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে।

00:10 / 00:31
প্রয়াত কিংবদন্তী সংগীত পরিচালক খৈয়াম। মোহাম্মদ জহুর খৈয়াম হাশমি যিনি খৈয়াম নামেই জনপ্রিয় সোমবার মুম্বইয়ের একটি হাসপাতালে মারা যান বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই । মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯২ বছর । কিংবদন্তি এই সংগীত রচয়িতা, যিনি কভি কভি এবং উমরাও জানের মতো চলচ্চিত্রগুলিতে তাঁর সংগীতের জন্য সর্বাধিক পরিচিতি পেয়েছিলেন, জুহুর সুজয় হাসপাতালে ফুসফুসের অসুস্থতায় আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হন। তাঁর প্রয়াণে শোক জ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

About Shariful Islam Khan

Check Also

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে ‘রোল মডেল’ বাংলাদেশ!

অনলাইন প্রতিবেদন :অনুপ্রবেশসহ বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে বৈঠকে বসতে চলেছেন ভারত ও বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীরা৷ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *