Breaking News
Home / নিউজপেপার / শিল্পমন্ত্রীর দাবি সংবাদমাধ্যম ৫২টি পণ্যের মান নিয়ে ভুল শব্দ ব্যবহার করেছে!

শিল্পমন্ত্রীর দাবি সংবাদমাধ্যম ৫২টি পণ্যের মান নিয়ে ভুল শব্দ ব্যবহার করেছে!

সম্প্রতি বিএসটিআই এর গবেষণার প্রেক্ষিতে প্রকাশিত ৫২ টি পণ্যের মান নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের পরে সংবাদ মাধ্যমে কিছু ভুল শব্দ ব্যবহৃত হয়েছে বলে দাবি করেছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হূমায়ুন। ওই সব পণ্য নিম্নমানের কিন্তু ভেজাল নয় বলেও দাবি করেন তিনি। তিনি বলেন, ভেজাল কথাটা খুবই খারাপ। এটি ব্যবহার করার দরকার নেই।সম্পর্কিত ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) গতকাল বিপণন পেশাজীবীদের এক সম্মেলনে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ মার্কেটার ইনস্টিটিউটের আয়োজনে দেশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে বিপণন বিভাগের পেশাজীবী এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিপণন বিভাগের শিক্ষক ও ছাত্রদের অংশগ্রহণে দ্বিতীয়বারের মতো উদযাপিত হয় বাংলাদেশ মার্কেটিং ডে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী। তিনি পণ্যের মান নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেন, বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডার্স অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই) পণ্যের মান রক্ষায় ব্যবস্থা নিচ্ছে। তবে ভেজাল বলাটা ব্যত্যয়। এসময় মন্ত্রী বলেন, পণ্য বিপণনের মাধ্যমে ক্রেতাদের আস্থা অর্জন করতে হবে। বিদেশের বড় বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশের বিশাল বাজারে প্রবেশ করছে। দেশিয় প্রতিষ্ঠানগুলোকে তাদের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকতে হবে। এ প্রতিযোগিতায় দেশিয় শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের পক্ষ থেকে সবধরনের সহায়তা প্রদান করা হবে। তিনি বলেন, পণ্যের নিম্নমান ও ভেজাল এক জিনিস নয়। দেশিয় পণ্যের ওপর মানুষের আস্থা যাতে নষ্ট না হয়ে যায় সে বিষয়ে তিনি গণমাধ্যমের সহায়তা কামনা করে বলেন, দেশিয় পণ্যের ওপর মানুষ আস্থাহীন হলে বিদেশি পণ্য বাজার দখল করে নিবে। এতে দেশিয় প্রতিষ্ঠানসমূহ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। জাতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

গত রমজান মাসের আগে বেশ কিছু খাদ্যপণ্য পরীক্ষা করে বিএসটিআই জানায়, ৫২টি পণ্য তাদের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারেনি। পরে উচ্চ আদালত এসব পণ্য বাজার থেকে তুলে নেওয়ার নির্দেশ দেন। দ্বিতীয় পরীক্ষায় বেশ কিছু কোম্পানি তাদের পণ্যের লাইসেন্স ফিরে পেয়েছে। কিছু লাইসেন্স একেবারেই বাতিল হয়েছে।

About Shariful Islam Khan

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *